চার্জশিট না দেয়া পর্যন্ত বুয়েটের সকল কার্যক্রম স্থগিতের দাবি

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার হ'ত্যা মা'মলার চার্জশিট না দেয়া পর্যন্ত বুয়েটের সব কার্যক্রম স্থগিত রাখার দাবি জানিয়েছেন আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীরা। একই সঙ্গে মা'মলার সুষ্ঠু বিচারের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ভিসি অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলামের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে তারা এ দাবি জানান। এর আগে দুপুরে চলতি বছরের (২০১৯-২০) শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিতসহ ৯ দফা দাবি জানান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

এছাড়া বেঁধে দেয়া সময়ের (বিকেল ৫টা) মধ্যে ভিসি অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম জবাবদিহি না করায় বুয়েটের প্রধান ফটকে তালা দিয়েছেন বিক্ষু'ব্ধ শিক্ষার্থীরা। বিকেল সোয়া ৫টার দিকে তারা তালা দেন।

প্রধান ফটকে তালা দেয়া ছাড়াও ভিসির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। কার্যালয়ের ভেতরে হল প্রভোস্টদের সাথে বৈঠকে বসেছেন ভিসি। শিক্ষার্থীরা বলছেন, বৈঠক শেষে ভিসি স্যার কথা না বলে যেন যেতে না পারেন সে জন্য তারা অবস্থান নিয়েছেন।

এদিকে আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হ'ত্যার ঘটনায় ২৯ জনকে আ'সামি করে রাজধানীর চকবাজার থানায় একটি মা'মলা করা হয়েছে। সোমবার (৭ অক্টোবর) রাতে চকবাজার থানার ওসি আলী হোসেন খান মা'মলার বি'ষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করে বলেন, ‘আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে চকবাজার থানায় একটি হ'ত্যা মা'মলা করেছেন। মা'মলা নম্বর ১৪। ওই মা'মলায় আ'সামি ১৯ জন। এর মধ্যে আ'টকরাও রয়েছেন। তাদের ওই মা'মলায় গ্রে'ফতার দেখানো হয়েছে।’